Deep Web, Darknet, এবং Dark Web-এর মধ্যে পার্থক্য কী?

আসসালামু আলাইকুম

কেমন আছে সবাই? আশা করি ভাল। আজকে একটা বিশেষ টিউন নিয়ে হাজির হয়েছি। অনেকেই Deep Web এবং Dark Web বিষয়ে জানেন।

অনেক Deep Web, Darknet, এবং Dark Web-এর মধ্যে পার্থক্য গুলিয়ে ফেলেন। তাই আজকের টিউনে আমি Deep Web, Darknet, এবং Dark Web-এর মধ্যে পার্থক্য নিয়ে অালোচনা করর।

 

আশা করি সবাই টিউনটা মন দিয়ে পড়বেন।…

সংক্ষিপ্তঃ ইন্টারনেটের একটি সুবিশাল বিরাট খণ্ড আছে যা এখনও সাধারণ বিশ্বের কাছে অস্পৃষ্ট। আমরা এগুলোকে Deep Web, Darknet, এবং Dark Web নাম দ্বারা আক্ষা দেই। Darknet – এটা একধরনের নেটওয়ার্ক যা স্বাভাবিক বা সাধারণ মোড ব্যবহার করে প্রবেশ করা যায় না।

Deep Web – dark web-এর একটি সাবসেট যেটা Google, Bing, DuckDuckGo-এর মত সার্চ ইঞ্জিনের ইনডেক্সে অন্তর্ভুক্ত করা থাকে না।

আমাদের মধ্যে অধিকাংশ, ইন্টারনেটের দশ বিশ বা হয়তো পঞ্চাশটা ওয়েবসাইটের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকি। এই সীমিত সংগ্রহের অধিকাংশই Google ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করা। বাস্তবে, ইন্টারনেট একটা বিরাট হল, এবং এই গ্লোবের চারপাশের সার্ভারে প্রায় এক বিলিয়ন ওয়েবসাইট বিদ্যমান রয়েছে।

এমনকি এই মিলিয়ন মিলিয়ন ওয়েবসাইটেই, ইন্টারনেট সম্পূর্ণ নয়। অনেকে বিশ্বাস করেন যে, আমরা যে ইন্টারনেট দেখতে পাই সেটা হিমশৈলের শুধুমাত্র একটি টিপ।

Darknet এবং Deep Web দু’টি কিছু অর্থে, একটি লুকানো ইন্টারনেট যা সম্পর্কে অধিকাংশ মানুষই অবিদিত। আর যারা darknet সম্পর্কে জানে তারা প্রায়ই deep web-এর সঙ্গে এটি গুলিয়ে ফেলে।

যদিও, উভয়ই পুরোপুরি আলাদা। তাই আমি এ ব্যাপারে ধারণাটা একটু ঝালাই করে দিই।

Deep Web কি?

শত শত বছর ধরে, যখন প্রযুক্তি উন্নত হয়ে উঠছে, মানুষ সমুদ্রের গভীরে ডাইভিং করতে সক্ষম এমন যন্ত্র বানাতে সক্ষম হয়েছে। এইভাবেই আমরা RMS টাইটানিক ধ্বংসাবশেষ আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়েছি।

সার্চ ইঞ্জিন ক্রলার ঠিক একই ধরনের কাজ করে যেটা এক্সপ্লোরার সাবমেরিন দ্বারা সম্পন্ন হয়। তারা ইন্টারনেট মধ্যে ডুব দেয় এবং সার্চকৃত নোট তুলে আনে।

আমরা টাইটানিকের হদিস হয়তো পেতে পারি, কিন্তু সমুদ্রের অতল গভিরে এখনও অনেক কিছু আবিষ্কার হয়নি। ঠিকসএকই ভাবে একই সার্চ ইঞ্জিন ক্রলার এর ক্ষেত্রে, তারা ইন্টারনেট কিছু (বলতে গেলে বেশিরভাগ) অংশের এখনও আবিষ্কার করতে পারে নি। আর সেটাকে আমরা Deep Web বলি।

উদাহরণস্বরূপ, সার্চ ইঞ্জিন, সার্ভার এবং কিছু সরকারি নেতৃত্বাধীন গোপন মিশন সম্পর্কে তথ্য হোস্টিং ওয়েবসাইট অ্যাক্সেস করতে সক্ষম হয় না।

কিন্তু deep web অত রহস্যময় নয় যেমনটি শোনা যায়। একটি প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (যেটাতে deep web ট্যাগ করা) আপনার বাড়িতেই এটা নিয়ে আসতে পারে।

এটা শুধু মাত্র স্বাভাবিক একটা ইন্টারনেট যেটা সার্চ ইঞ্জিন ক্রলার নাগালের মধ্যে নেই। উদাহরণস্বরূপ, কিছু পেইড স্ট্রিমিং সেবা দ্বারা এই নেটওয়ার্কগুলো পরিচালিত হয়।

এটা এক প্রকার গভীর ওয়েব বা লুকানো ওয়েব। একথাও ঠিক যে, সার্চ ইঞ্জিনগুলো মাসিক সাবস্ক্রিপশনের জন্য এসকল ওয়েবসাইটের ক্যাটালগ ইনডেক্স করবে না।

Darknet কি?

Deep web-এর পক্ষান্তরে, Darknet মানুষের কাছে বেশি পরিচিত। এটি বিদ্যমান ইন্টারনেট উপরে নির্মিত একটি এনক্রিপ্ট করা নেটওয়ার্ক, এবং darknet অ্যাক্সেস করার জন্য নির্দিষ্ট সফটওয়্যার বা টুলস প্রয়োজন হয়।

এটা সম্ভব যে, প্রচলিত ইন্টারনেটে ব্যবহৃত প্রোটোকল darknet-এর উপর কাজ করতে পারে না।

Darknet, ব্যবহারকারীদের জন্য নামহীনতা প্রদান করে।

এই ধরনের একটি darknet হল Tor বা The Onion Router। এটা বেশি জনপ্রিয়। এই Tor নেটওয়ার্কে প্রবেশ করা জন্য Tor browser-এর প্রয়োজন হয়।

Tor স্বাভাবিক ইন্টারনেট ওয়েবসাইটে ভিজিট করার জন্যও ব্যবহার করা যেতে পারে, কিন্তু এটার অনেক লুকানো ওয়েবসাইট এবং সার্ভিস আছে যা রেগুলার ইন্টারনেট দিয়ে অ্যাক্সেস করা যায় না।

Tor আমাদের সেই ক্ষমতা প্রদান করে তাদের নিজস্ব প্রটোকল করে যেটা Tor Hidden Service Protocol হিসাবে পরিচিত। আর Tor নেটওয়ার্কে সীমাবদ্ধ ওয়েবসাইটের একটি বিশেষ .onion অ্যাড্রেস আছে।  এই কারণে, Tor-এর ডার্কনেট onionland হিসাবেও পরিচিত।

Friend-to-Friend (F2F) নেটওয়ার্কও আরেক ধরনের darknet। এই ক্ষেত্রে, দুইজন পরিচিত মানুষ এই ইন্টারনেটের মাধ্যমে সরাসরি একে অপরের সাথে যোগাযোগ করে।

তারা P2P কানেকশন ব্যবহার করে কিছু ফাইল শেয়ার করার জন্য। এ ধরনের নেটওয়ার্ক, অন্য মানুষ দ্বারা ব্যবহারযোগ্য না, এনক্রিপ্ট করা অথবা পাসওয়ার্ড সুরক্ষিত. সুতরাং, শুধুমাত্র সম্পর্কযুক্ত মানুষে এক্সেস আছে।

Increasing the confusion……

Dark Web কি?

 

আরেকটি জিনিস, যেটা আপনি জানতে চান, Dark Web সম্পর্কে। আপনি মনে করতে পারেন যে dark web deep web-এরই সাবসেট। কিন্তু আপনি dark web এবং darknet-এর মধ্যে পার্থক্যটা বুঝতে হবে, ব্যাপারটা এরকম যে, ইন্টারনেট এবং WWW (World Wide Web) একই জিনিস না।

darknet একটি নেটওয়ার্ক এবং deep web ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবেরই খানিকটা অংশ যেটা সার্চ ইঞ্জিনের নাগালের বাইরে। সুতরাং, dark web কে darknet-এর একটা রহস্যময় ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবে বলা যায়, Tor, Freenet প্রভৃতির মত। যেসকল সর্ভিস এবং ওয়েব সাইট darknet-এ চলে তাদেরকে dark web বলে।

শেষ কথা

আসলে আমরা যেই সাধারণ ওয়েব ব্রাউজ করি সেটা গোটা ওয়েবের একটা অংশ মাত্র। ডার্ক নেট একটা নেটওয়ার্ক যেটা এক প্রকারের গোপন ওয়েব ব্রাউজিং। এই ওয়েবে নিজের পরিচয় গোপন রেখে কাজ করতে হয়। যেমনটি হ্যাকাররা করে। এখানে অনেক অনৈতিক কাজও চলে। এব্যাপারে অনেকে বলতে পারেন প্রশাসন কেন তাদের ধরছে না। আসলে এরা এসব ওয়েব পেজকে এমন ভারে ইনকোড করে যেটা দেখলে মনে হতে পারে কোনো বাচ্চাছেলে হয়তো মনের মত কিবোর্ড টিপেছে। তাই এই কোড গুলো ডিকোড করা প্রায় অসম্বভ। কিন্তু ডার্ক নেট এই কাজটা করতে পারে। যাই হোক, ডার্ক নেটে অনেক ভালো জিনিসও পাওয়া যায়। আবার Microsoft, Apple এর পন্য কিছু কিছু স্থানে ৮০% ডিসকাউন্ডেও পাওয় যায়। আবার অনেক অপরাধিমুলক কাজও আছে। তাই এখানে প্রতিটি পদক্ষেপ মেপে মেপে ফেলতে হয়। তাহলে সবাই ভালো থাকেন। আগামি কোনো এক পর্বে ইন্টারনেট এবং ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবে (WWW) -এর মধ্যে পরথক্য নিয়ে আলোচনা করবইনশাল্লাহ।

ভালো লাগলে সকল ধরণের বাংলা টিপস পেতে আমার সাইট এ আশুন প্রায় ১০ হাজারের মত পোস্ট রয়েছে।Bn.TipsTune.Info আমার সাইট।

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment