চলুন এবার পানিতে সাতারঁ কাটা শিখি খুব সহজে

আসসালামু আলাইকুম।
আমরা জানি এদেশে প্রায় ৮৮% মানুষ ঠিকভাবে সাঁতার জানেনা। অনেকেই, বিশেষত গ্রামের মানুষেরা বিরাট দাপাদাপি করে ৫-৭ মিনিটে ছোট-খাট একটা পুকুর পার হয়ে হাঁপাতে থাকে, কিন্তু সেটা ঠিকভাবে সাঁতার না। ঠিক ভাবে সাঁতার কাটতে শিখলে আপনি একটানা অনেক সময় ধরে সাঁতার কাটতে পারবেন। সাঁতার কাটা অবস্থায় মাঝ নদীতে রেস্ট নিয়ে আবার সাঁতার কাটতে পারবেন। কিছুটা হাটার মত পরিশ্রম হবে, টায়ার্ড হয়ে গেলে যেমন একটু আস্তে হেটে রেস্ট নিয়ে আবার জোরে হাটা যায়, সেভাবে নিয়মিত প্র্যাকটিস থাকলে সবাই, এক থেকে দুই মাইল সাঁতার কেটে তীরে উঠে জীবন বাঁচাতে পারবেন।

অনেক তো বক বক শুনলেন এবার কি শিখতে চান না সাঁতার?

  • ১. নাক সহ মাথা পানিতে ডুবিয়ে সাঁতার কাটতে হবে।
  • ২. যে কেউ চাইলে ৩০ সেকেন্ড দম বন্ধ রাখতে পারেন, আর ৩ সেকেন্ডে বুক ফুলিয়ে নিঃশ্বাস নিতে পারেন। তার মানে, মিনিটে ২ বার নিঃশ্বাস নিলেই হলো।
  • ৩. যতক্ষণ দম বন্ধ থাকে, ততক্ষণ মানুষ কোন চেষ্টা ছাড়াই পানিতে ভেসে থাকতে পারে, হাত পা নাড়ানোর কোন প্রয়োজন নেই। এ কথাটা মনে প্রানে বিশ্বাস করতে হবে।
  • ৪. ৩০ সেকেন্ড পর নিশ্বাস নেবার প্রয়োজন হলে শুধু সেই সময়ে হাত নেড়ে পানিতে মৃদু ধাক্কা দিয়ে ঘাড় কাত করে, মাথার বেশীর ভাগটা পানির নিচে থাকা অবস্থায়, ঠোট দুটো শুধু পানির উপরে এনে নিশ্বাস নিতে হবে। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে নিশ্বাস নিয়েই আবার মাথাকে পানির মধ্যে ডুবিয়ে ফেলতে হবে। এই নিশ্বাস নেবার টেকনিকটা প্র্যাকটিস করতে হবে। কোন সাঁতারু/ ট্রেইনার এর সাহায্য নিতে হবে। এই টেকনিক টুকু আয়ত্তে আসলেই সাতার শেখা শেষ।
  • ৫. সাঁতার কাঁটা অবস্থায় এগিয়ে যাবার জন্য হাত ও পা দুটোই একসাথে ব্যবহার করতে হবে। পায়ের টেকনিকটা জরুরী। পা ডুবে থাকলে শরীর বাঁকা হয়ে পানির সাথে বাঁধা তৈরি করে, এবং সামনে আগানোর গতি কম হয়। তবে এটাও দুই/তিন সপ্তাহ প্র্যাকটিস করলে আয়ত্তে আনা সম্ভব।
  • ৬. পানিতে মাথা ডোবানো অবস্থায় মানুষ আতঙ্ক বোধ করতে থাকে, তাতে দ্রুত দম ফুরিয়ে যায়। নিজেকে সাজেশন দিয়ে আতঙ্ক দূর করতে হবে। তাহলে ঘন ঘন দম নিতে হবে না।
  • ৭. সাঁতারের চশমা থাকলে ভালো হয়। যে কোন পানিতে ট্রাভেলে যাওয়ার সময় ২০০-৩০০ টাকার মধ্যে একটা চশমা কিনে নিতে হবে।
  • ৮. পুরোপুরি সাঁতার শেখার আগে কেউ সাগর বা নদীতে নামতে চাইলে, প্লাস্টিকের লাইফ জ্যাকেট কিনে নেওয়া ভাল। কয়েকশত টাকার মধ্যেই লাইক জ্যাকেট কিনতে পারবেন।

নদীমাতৃক এদেশে সাঁতার জানা থাকা সকলের জন্য আবশ্যক। নিজেকে রক্ষার পাশাপাশি সাঁতারের মাধ্যমে শারীরিক ব্যায়ামও হয়ে থাকে।

আরো নতুন কিছু শিখার জন্য ট্রিকবিডিএর পাশে থাকুন।

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment