ফেসবুক গ্রুপ সম্পর্কে কিছু পরামর্শ

আপনি যদি কোনো ফেসবুক গ্রুপের অ্যাডমিন/মোডারেটর হয়ে থাকেন, তাহলে এই পরামর্শগুলো আপনার কাজে আসবেঃ

(১) যেকোনো ফেসবুক গ্রুপের নাম যখন খুশি তখনই চেঞ্জ করা যায়। আর ফেসবুক গ্রুপের নাম চেঞ্জ করলে, গ্রুপের সব মেম্বার নোটিফিকেশন পায় যে, গ্রুপের নাম কোনো অ্যাডমিন চেঞ্জড করেছে। তাই গ্রুপের নামের শেষে একটা স্পেস দিয়ে গ্রুপের নামটা সেভ করুন। এতে আপনার গ্রুপের নামও চেঞ্জ হবে না, আবার সব মেম্বার্স-দের কাছে নোটিফিকেশনও যাবে। এরকম প্রতি মাসে করুন। এর ফলে কিছু ইনঅ্যাকটিভ মেম্বার্স গ্রুপে অ্যাকটিভ হয়ে যেতে পারে।

(২) পাবলিক/ক্লোজড গ্রুপে যদি ৫,০০০ মেম্বার্স হয়ে যায় তাহলে গ্রুপ প্রাইভেসি নিয়ে সতর্ক থাকুন। কারণ ৫,০০০ মেম্বার্স হয়ে গেলে কোনো অ্যাডমিন যদি পাবলিক গ্রুপের প্রাইভেসি ক্লোজড/সিক্রেট অথবা ক্লোজড গ্রুপের প্রাইভেসি সিক্রেট করে তাহলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যদি কোনো অ্যাডমিন পাবলিক/ক্লোজড প্রাইভেসি-তে ফিরিয়ে নিয়ে না আসে, ২৪ ঘণ্টা পার হয়ে গেলে তা আর ফিরিয়ে আনা যাবে না।

(৩) গ্রুপে কখনও একটা এফবি আইডি দিয়ে অ্যাডমিন থাকবেন না। নিজের কোনো একটা এক্সট্রা এফবি আইডি অ্যাডমিন বানিয়ে সেটা ডিঅ্যাকটিভেট করে রাখুন, যাতে আপনার অ্যাকাউন্ট লকড/ব্লকড হয়ে গেলেও গ্রুপের অ্যাডমিনশিপ না হারান।

(৪) গ্রুপের ওরিজিনাল ক্রিয়েটর না থাকলে খুব বিশ্বাসী বন্ধু ছাড়া অপরিচিত কাউকে অ্যাডমিন বানাবেন না। তবে মোডারেটর বানাতে কোনো অসুবিধা নেই।

কোনো পয়েন্ট না বুঝে থাকলে কমেন্ট করুন।
বিঃদ্রঃ আরও নতুন নতুন পরামর্শ পোস্ট এডিট করে যোগ করা হবে। তাই পোস্টটি নিয়মিত ভিসিট করবেন।

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment