ইলেকট্রিক শুরু করার আগে বিভিন্ন জিনিসগুলোর সাথে পরিচিতি

ইলেকট্রিক জিনিসগুলোর সাথে পরিচিতি

গত পোষ্টে আরেকটি পোষ্ট করেছিলাম চাইলে সেটাও দেখে নিতে পারেন

চলুন তাহলে দেখে নেই সেইসব ইলেকট্রিক জিনিশগুলো এবং তার সিম্বল।

ইলেকট্রিক জিনিসগুলোর

Transformer/টান্সফরমার


এমন একটি ইলেক্ট্রনিক/ইলেকট্রিক্যাল যন্ত্র যেটি ইনপুট হিসেবে ইলেক্ট্রিক পাওয়ার নিয়ে আউটপুটেও ইলেকট্রিক পাওয়ার দিবে, কিন্তু এদের মধ্যে কোন তারের সংযোগ থাকবে না।

কিন্তু, তাত্ত্বিক ভাবে বলতে গেলে বলতে হবে, ”ট্রান্সফরমার এমন একটি স্থির যন্ত্র বিশেষ যেখানে কারেন্টের সাপেক্ষে, এসি সাপ্লাই এর ভোল্টেজ বাড়ানো হয় নয়ত কমানো হয়”।

Capacitor/ক্যাপাসিটর


এটি মূলত বৈদ্যুতিক চার্জ সঞ্চয়ক যন্ত্র বিশেষ। এর বাংলা অর্থ “ধারক” অর্থাৎ যে বৈদ্যুতিক চার্জ ধারণ করে।
সহজ ভাবে বুঝতে ক্যাপাসিটরকে খুব ছোট আকারের ব্যাটারির সাথে তুলনা করা যেতে পারে। ব্যাটারি এই বৈদ্যুতিক চার্জ কে দীর্ঘ সময়ের জন্য জমা করতে পারে। অপরদিকে ক্যাপাসিটর খুব স্বল্প সময়ের জন্য এই চার্জ জমা করতে পারে।

Resistor/রেজিস্টার

Diode/ডায়োড


ডায়োড বিপরীত মুখী বিদ্যুৎ প্রবাহ কে একমুখী করে বা অন্যভাবে বললে এসি (AC) কে ডিসি (DC) করে রেক্টিফিকেশন প্রকৃয়ার মাধ্যমে। সে কারণেই এর অপর একটি নাম রেক্টিফায়ার।

Transistor/ট্রানজিস্টার


ট্রানজিস্টর মূলত একটি ডিভাইস বা কম্পোনেন্ট। ইলেকট্রনিক্স এ বহুল ব্যবহৃত হয় এটি। মুলত এটি পরিবর্ধক বা এম্পলিফায়ার হিসেবে সার্কিটে কাজ করে। আবার সার্কিটে এটি সুইচের ভূমিকাও নিতে পারে।

LED/বাতি


বাতি মুলত অনেক ধরনের হয়ে থাকে, উপরে যে চিত্রটি দেখতে পাচ্ছেন সেটি একটি মিনি বাতি এটা সিংলাল হিসাবে ব্যবহার করা হয়।

Switch/সুইচ


সুউচও অনেক রকম হয়, যেমন AC লাইনে এক রকম DC লাইনে আরেক রকম ব্যবহার হয়।

Battery/ব্যাটারি


১ ভোল্ট থেকে সুরু করে ২৪ ভোল্টের উপরে।

Circuit Diagram

ইলেক্ট্রনিক বিষয় নিয়ে পরবর্তী পোষ্টগুলোতে থাকছে মজার মজার সার্কিটগুলো নিয়ে।

ধন্যবাদ সবাইকে

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment