HTEC এর নতুন ফোন আলট্রাপিক্সেল ক্যামেরার এইচটিসি ইউ প্লে

দয়া করে কেও খারাপ comment করবেন না

একটা কথা সবাই মনে রাখবেন ব্যবহারে বংশের পরিচয়
জ্যাক বিহীন ফোন নিয়ে হাজির হল এইচটিসির নতুন মডেল ইউ প্লে।

সম্প্রতি উদ্বোধন হওয়া ৫.২” সুপার এলসিডি ডিসপ্লে বিশিষ্ট এইচটিসি ইউ প্লে স্মার্টফোনের সামনের এবং পিছনের দু’টো অংশই গ্লাস দিয়ে ঢাকা; এবং সামনের অংশে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার।
বেশিরভাগ মানুষের কাছে স্পেসিফিকেশনটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এইচটিসি ইউ প্লে ফোনটিতে অক্টাকোর (৪ X ২.০ কর্টেক্স A৫৩ এবং ৪ X ১.১ গিগাহার্টজ কর্টেক্স A৫৩) মিডিয়াটেক এমটি৬৭৫৫ হিলিও পি১০ প্রোসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। প্রোসেসরটি যথেষ্ট শক্তিশালী মনে হলেও চিপসেটটি কিন্তু একটু কম শক্তিসম্পন্ন। এছাড়া ফোনটিতে দেয়া হয়েছে ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, যদিও ৩ জিবি র‍্যামের ভার্সনও বাজারে পাওয়া যাবে।
অ্যাপেল, এলজি এবং হুয়াওয়ের নতুন ফ্ল্যাগশিপ ফোনগুলোর মতো এই ফোনটিতে ডুয়াল ক্যামেরা না থাকলেও এতে দেয়া হয়েছে আলট্রাপিক্সেল ক্যামেরা, যার কারণে ইমেজের আউটপুট আসে অসাধারণ। রিয়ার ক্যামেরাটিতে আছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা যেটিতে থাকছে ২৮এমএম লেন্স আর ২.০ অ্যাপারচার। ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরাটিও চমৎকার, কারণ এতে আছে ১৬ মেগাপিক্সেলের ২৮এমএম লেন্স আর ২.০ অ্যাপারচার।
এইচটিসি ইউ প্লে ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ২,৫০০ এমএএইচের নন-রিমুভেবল ব্যাটারি। এছাড়া এতে টাইপ-সি রিভার্সিবল কানেক্টর দেয়া হয়েছে, যা বর্তমানে সবচেয়ে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ইউএসবি পোর্ট। ব্যাটারির ক্ষমতা একটু কম, যার দ্বারা স্বাভাবিক ব্যবহারে এক দিন চার্জ থাকা নিয়ে একটু সন্দেহ রয়েছে। তবে চিন্তার খুব একটা কারণ নেই, যেহেতু ফোনটিতে রয়েছে ফাস্ট চার্জিং টেকনোলোজি।
এইচটিসি ইউ প্লে ফোনটির ৪/৬৪ জিবি ভার্সনটি বাজারে পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ২৩-২৪ হাজার টাকায়। যদিও স্থানভেদে দাম কমবেশি হতে পারে।
মনে রাখবেন, ফোনটিতে হেডফোন জ্যাক নেই। তাই গান শুনতে হলে কনভার্টার ইউজ করতে হবে অথবা ব্লুটুথ হেডফোন ইউজ করতে হবে। হেডফোন জ্যাক ইস্যু না হলে আর বাজেট বিবেচনা করলে ফোনটি কেনা ভুল হবে না। এখন ডিসিশন আপনার!

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment