গুগলের ড্রোন কি এ বছরই আসছে?

স্বয়ংক্রিয় ড্রোনের সাহায্যে
গ্রাহকের কাছে পণ্য পৌঁছে
দিতে দীর্ঘদিন ধরেই গবেষণা
করছে গুগল। এ জন্য নিয়মিতই
‘প্রজেক্ট উইং’ প্রকল্পটির
পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে
তারা। গুগলের মূল প্রতিষ্ঠান
‘অ্যালফাবেট’-এর প্রধান
নির্বাহী কর্মকর্তা ল্যারি
পেজ সম্প্রতি অংশীদারদের
কাছে এক চিঠি পাঠিয়েছেন।
এই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়,
চলতি বছরই উইং প্রকল্পে
চমকপ্রদ ঘটনা ঘটবে। গত বুধবার
এক ব্লগ বার্তায় প্রকল্পটি
সম্পর্কে এমনই তথ্য জানান
প্রজেক্টের সহপ্রধান জেমস
রায়ান বার্গেস।
এতে এই প্রকল্পের সর্বশেষ
হালনাগাদ সম্পর্কে জানানো
হয়, উইং ড্রোনটি ইন্টেল এবং
ডিজিআইয়ের মতো অন্য
নির্মাতাদের ড্রোনগুলোর
সঙ্গে নাসা এবং ফেডারেল
এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন
কর্তৃক পরিচালিত একটি জাতীয়
পরীক্ষায় অংশ নেয়। এ ছাড়া
উইংয়ের নির্মাতা দলটি এমন
কিছু পরীক্ষা করেছে, যার
মাধ্যমে ড্রোন হিসেবে উইং
নিজেকে অ্যালফাবেটের জন্য
গুরুত্বপূর্ণ এবং লাভজনক করে
তুলতে পারে।
প্রতিষ্ঠানটি রোবট ড্রোন
পরিচালনার জন্য একটি
সফটওয়্যারও তৈরি করেছে, যা
অন্য ড্রোনের সঙ্গে মুখোমুখি
সংঘর্ষ ঠেকাতে পারবে।
জেমস রায়ান বার্গেস বলেন,
উইং ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের
হাজার হাজার ড্রোন আকাশে
উড়তে দেখা যাবে কয়েক
বছরের মধ্যে। তাই তারা এমন
একটি পদ্ধতি তৈরি করছেন
যেগুলো শুধু একে অপরের
কাছাকাছি আসা থেকে নয়
বরং নিজেদের জন্য রুটও বেছে
নিতে পারবে। সফটওয়্যারটি
গুগল ম্যাপ, আর্থ ও স্ট্রিট ভিউ
ব্যবহার করবে বলেও জানান
বার্জেস।
২০১২ সালে উইং প্রকল্প শুরু
হওয়ার পর থেকেই মূল নকশা নষ্ট
হয়ে যাওয়াসহ নানা বিপত্তির
মুখে পড়ে। তবে সেগুলো এখন
আর ভাবার বিষয় না। তা স্পষ্ট
ইঙ্গিত রয়েছে ল্যারি পেজের
চিঠিতে। ড্রোনের ভবিষ্যৎ
নিয়ে জেমস রায়ানের
বার্তাও নিশ্চিত করে, তাঁরা
বেশ দূর এগিয়েছেন।
বিশ্লেষকদের ধারণা, বড়
চমকপ্রদটি হতে পারে পণ্য
পরিবহনে আনুষ্ঠানিকভাবে
তাঁদের ড্রোন প্রযুক্তি নিয়ে
আসার ঘোষণা। এই সেবার জন্য
ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোও
অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে।

[url=http://tunesuhag.tk] সবার আগে সব সময় নিত্য নতুন টিপস এবং ট্রিকস পেতে আমার সাইট ঘুরে আসুন ভালো লাগার গ্যারান্টি দিলাম[/url]

Share This Post

Leave a Comment