জেনে নিন ইসলামের এক কষ্টকর গল্প! সাহাবায়ে কেরাম ( রাযিঃ) এর অপরের খাতিরে পিপাসায় মৃত্যুবরণ! [মুসলমানদের সকলের পড়া উচিত]

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

আসসালামুআলাইকুম


রাহমানুর রাহীম মহান আল্লাহর নামে শুরু করছি আজকের পোস্ট।

আজকের হাদীসের বিষয়ঃ

সাহাবায়ে কেরাম ( রাযিঃ) এর অপরের খাতিরে পিপাসায় মৃত্যুবরণ!

হযরত আবু জাহম ইবনে হুযাইফা ( রাযিঃ) বর্ণনা করেন, আমি ইয়ারমুকের যুদ্ধে আপন চাচাত ভাইয়ের তালাশে বাহির হইলাম। কেননা, তিনি যুদ্ধে অংশগ্রহণ করিয়াছিলেন। আর সঙে এক মশক পানি লইয়া গেলাম। যাহাতে পিপাসার্ত থাকিলে পান করাইতে পারি। ঘটনাক্রমে তাহাকে একস্থানে মুমূর্ষু অবস্থায় পড়িয়া থাকিতে দেখিলাম, তাহার মৃত্যু যন্ত্রণা শুরু হইয়া গিয়াছিল। আমি তাহাকে জিজ্ঞাসা করিলাম, এক ঢোক পানি দিব কি? সে ইশারায় হাঁ বলিল। এমন সময় তাহার নিকটবর্তী মৃত্যু যন্ত্রণায় কাতর পড়িয়া থাকা আর এক ব্যক্তি আহ্ করিয়া উঠিল। আমার চাচাত ভাই তাহার আওয়াজ শুনিয়া আমাকে তাহার নিকট যাওয়ার ইশারা করিল। আমি তাহার নিকট পানি লইয়া গেলাম। তিনি ছিলেন হিশাম ইবনে আবিল আস। তাহার নিকট পৌঁছিবা মাত্রই মৃত্যু যন্ত্রণায় কাতর পড়িয়া থাকা তৃতীয় আরেক ব্যক্তি আহ্! করিয়া উঠিল। হেশাম আমাকে তাহার নিকট যাওয়ার ইশারা করিলেন। তাহার নিকট পৌঁছিয়া দেখি, তিনি আর ইহজগতে নাই। অতঃপর হিশামের নিকট ফিরিয়া আসি দেখিলাম; তিনিও ইহজগত ত্যাগ করিয়াছেন। অতঃপর চাচাত ভাইয়ের নিকট আসিলাম; ইত্যবসরে সেও শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করিয়াছে। ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন। (দিয়ারদাহ্)

এই হাদীসের ফায়দাঃ

এই ধরনের বহু ঘটনা হাদীসের কিতাবসমূহে বর্ণিত রহিয়াছে। এই আত্নত্যাগের কি কোনো সীমা আছে যে, আপন ভাই মরণাপন্ন আর পিপাসায় কাতর এমতাবস্থায় অন্য কাহারও প্রতি লক্ষ্য করাই তো কঠিন ব্যাপার; তদুপরি তাহাকে তৃষ্ণার্ত অবস্থায় রাখিয়া অন্যকে পানি পান করাইবার জন্য চলিয়া যাওয়া। আল্লাহ এই সকল প্রাণ বিসর্জনকারীদের রুহকে অশেষ দয়া ও অনুগ্রহ দ্বারা সম্মানিত করুন যাহারা মৃত্যুকালে যখন জ্ঞানবুদ্ধি লোপ পাইয়া যায় তখনও অন্যের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করিতে যাইয়া জীবন দান করেন।

এই হাসীদের মাধ্যমে কি বুঝতে পারলেন?

নিজের বিপদের সময় অন্য কারো বিপদ হলে নিজেকে বিসর্জন দিয়ে আগে তাকে সহায়তা করা।

বি.দ্রঃ অ্যাডমিন প্যানেলকে বলছি, এই পোস্টটা কোথাও থেকে কপি নয়। এমনকি গুগলেও নেই। আর আল্লাহর হাদীস কোনো নিজে বানানো যায় না। আমি একটি হাদীস বইয়ে এই গল্পটি পড়েছিলাম তাই নিজ থেকে খুবই কষ্ট করে টাইপ করে পোস্টটি লিখছি আপনাদের সাথে শেয়ার করার জন্য। নিজ থেকে খুব কষ্ট করে লিখছি, তাই কষ্ট করে একটা কমেন্ট করে যাবেন কিন্তু?

ভালো থাকুন, সুস্থ্য থাকুন এবং ট্রিকবিডির সাথেই থাকুন। সবাইকে ধন্যবাদ। আসসালামুআলাইকুম?

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment