Android এ জিরো থেকে হিরো [পর্ব-০৮] :: ফোনের পারফরম্যান্স নিয়ে দুশ্চিন্তা? ঝেড়ে ফেলুন সব চিন্তা। ফোন চলবে তুফানের গতিতে সাথে অভাবনীয় ব্যাটারী ব্যাকআপ।

সুপ্রিয় ভিউয়ার, আসসালামু আলাইকুম। আশা করি সবাই ভালো আছেন।

পোস্ট এর টাইটেল দেখেই হয়ত বুঝেই গেছেন এটা এন্ড্রয়েড নিয়ে চেইন বা সিরিজ টিউন।

Android.

বর্তমানের জনপ্রিয় মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম। আর ওপেন সোর্স হওয়ায় এর মোড / চেঞ্জ সবাই করতে পারে। আমার এই সিরিজের মাধ্যমে নতুনদের কে সঠিক ভাবে কাজ করার প্রক্রিয়া, ধাপ ও বিভিন্ন ট্রিক সম্পর্কে জানানো হবে। তাই আশা করি সাথেই থাকবেন।
তার আগে একটা ধাপ জেনে নিন যেটা সবার জানা উচিৎ । এই ধাপেধাপে কাজ করলে ফোন নিয়ে কাস্টোমার কেয়ারে দৌড়াদৌড়ি করতে হবে না (আমার মনে হয়)
*
*
রুট > Xposed > কাস্টম রিকভারী > স্টক রমের ব্যাকাপ > ফার্মওয়ার ব্যাকাপ (Optional) > নতুন রম পোর্ট > নতুন রম দেওয়া. (ভার্সন ভেদে কাস্টম রিকভারীর সিরিয়াল একটু চেঞ্জ হবে)
*
*
আমার এই সিরিজে এই ধাপ গুলো বেশ ভালোভাবেই বলা হবে। অনেকে হয়ত এই ধাপ গুলো নিয়ে বিভিন্ন মত প্রকাশ করবে তাদের উদ্দ্যেশেঃ
আমি আরো অনেক জিনিস স্কিপ / বাদ দিয়ে ছোট করে নিয়েছি।

আজ সিরিজ এর ৮ম পর্ব। আমরা অনেক দূর এগিয়েছি। রুট, কাস্টম রিকভারী, xposed, স্টক রমের ব্যাকআপ। এতদিন ফোনের রক্ষায় কাজ করেছি, সময় এসেছে অন্য কিছু করার। এই পর্ব হচ্ছে ফোনের পারফরম্যান্স নিয়ে। অনেকেই ফোন রুট করেন স্পীড বাড়ানোর জন্য, পারফরম্যান্স বাড়ানোর জন্য। বেশি ব্যাটারি ব্যাকআপ পাবার জন্য। তাদের জন্য এই পোস্ট। যদি কোন প্রশ্ন থাকে তো কমেন্ট ও ফেসবুকে যোগাযোগ করতে পারেন

তো চলুন শুরু করা যাক।

প্রথম কথাঃ

সিরিজের ৮ম পর্বে কথা ছিল xposed নিয়ে পোস্ট করার। কিন্তু দেখি এর আগেই একজন এটা নিয়ে সম্পুর্ন সাজানো গোছানো পোস্ট করে দিয়েছে। তাই ভাবলাম আমার আর পোস্ট করে কাজ নেই। যাদের xposed নিয়ে সমস্যা আছে তারা এই পোস্ট দেখতে পারেন। পুরো হেল্প হবে ।
আজকের পোস্ট এর বিষয় আগেই ক্লিয়ার করেছি। চলুন app টার সাথে পরিচিত হই।

Greenify:

হুম। greenify নিয়ে এর আগে অনেক পোস্ট হয়েছে। কিন্তু অনেকেই এর সুফল নিতে পারছেন না এর সঠিক ব্যবহার না জানার কারণে। আমি অনেক বুস্টার app ইউজ করেছি কিন্তু এর মত app দেখিনি। তাই আজকে আমি আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম এর শুরু থেকে পর্যন্ত স্ক্রিনশট সহ টিউটোরিয়াল। আশা করি আপনাদের সবার কাজে আসবে।

যা যা লাগবেঃ

* একটা রুটেড এন্ড্রয়েড ফোন।
*‎ Greenify > Download Link (Play Store)
*‎ Greenify Donation Package (For Pro Version)> Download Link(Box)
*‎ সেটে Xposed ইনস্টল করা থাকতে হবে। এখনো Xposed দিতে না পারলে এই পোস্ট দেখতে পারেন
*‎ সিউর হয়ে নিন আপনি স্টক রমের ব্যাকআপ নিয়ে রাখছেন ও ফোনে কাষ্টম রিকভারী দেয়া আছে।
*‎ আমার এই সিরিজের ৭ম পর্ব পড়েছেন।

কাজ সমূহঃ

1. উপরের লিংক থেকে প্রয়োজনীয় app ডাউনলোড করে নিন। ও ইনস্টল করে নিন। Xposed এর মডিউলে গিয়ে greenify এর পাশে টিক দিয়ে ফোন রিবুট দিন।

2. ‎এবার ফোন চালু হলে greenify app এ ঢুকে পরুন। রুট পারমিশন চাইবে গ্রান্ট/এলাও করে দিন।
3. ‎এপ এর মেনু থেকে সেটিং এ ক্লিক করুন। এবার Xposed Based Features এ ক্লিক করুন। অনেক অপশন আসবে। সব গুলাতে ক্লিক করুন।


4. ‎এবার ব্যাক করে এপ এ ফিরে আসুন। “+” /প্লাস চিহ্ন তে ক্লিক করুন। অনেক এপ এর নাম আসবে। যেসব এপ আসবে সব গুলো সিলেক্ট করে নীচে “√” বাটনে ক্লিক করুন। কিছু সিস্টেম এপ ও দেখতে পাবেন। সেগুলোতেও টিক দিন। অনেকেই এখানে কনফিউজড হয় কোন এপ দিব। Shareit সিলেক্ট করলে আপনি ফোনের স্ক্রিন অফ করলে শেয়ার ইটের সেন্ড বা রিসিভ বন্ধ হয়ে যাবে। স্ক্রিন অন অবস্থায় চলবে।
5. ‎সিস্টেম এপ এর ক্ষেত্রে একটা পপআপ আসবে। insist লেখায় ক্লিক করে দিন।

6. ‎সবই ভাবে কাজ শেষ এবার পারফরম্যান্স পাব। কিন্তু পায় না। কারণ কাজ এখনো শেষ হয় নি। আবার এপ এর মেনু থেকে Create Hibernation Shortcut এ ক্লিক করে আরেক পপআপ থেকে Hibernate Now এ ক্লিক করুন। অথবা widget থেকে হোম স্ক্রিনে Hibernate Now শর্টকাট এড করে নিন।


7. ‎এখন কম্পিউটার এ যেমন বার বার রিফ্রেশ করে সেই রকম কোন কাজ শেষে হোমস্ক্রীনের শর্টকাট এ ক্লিক দিবেন। বা যখন ফোন স্লো লাগবে তখন ক্লিক করুন। ফলাফল নিজেই দেখবেন। সাথে যেগুলো এপ Hibernate না হবে সেগুলো কে greenify এপ এ ঢুকে সেই এপ টিকে সিলেক্ট করে মেনু থেকে Hibernate করে দিন।

শেষ কথাঃ

ফোনের পারফরম্যান্স এখন আপনার হাতে । শুধু ক্লিক করুন। এটা একদম রিস্ক ফ্রি কাজ। এবং খুব সোজা। আশা করি কোনো সমস্যা ছাড়াই কাজ শেষ করতে পারবেন।
আপনাদের একটা কমেন্টই পারে আমাদের লেখার উৎসাহ বাড়িয়ে তুলতে, তাই কমেন্ট করুন।
সবাই ভাল থাকবেন, সুস্থ্য থাকবেন, প্রযুক্তির সাথেই থাকবেন।

প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট বক্স অথবা

ফেসবুকে আমি।

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment