২২ সরকারি দপ্তরের সাইবার ঝুঁকি চিহ্নিত : পলক।

দেশের ২২টি সরকারি দপ্তরের সাইবার নিরাপত্তায় ঝুঁকি চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বৃহস্পতিবার তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সাইবার নিরাপত্তা সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পলক বলেন, হ্যাকাররা বড় হুমকি হয়ে উঠছে। সাইবার নিরাপত্তা এখন নিঃসন্দেহে বড় চ্যালেঞ্জ।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন লিথুনিয়ার সাবেক অর্থমন্ত্রী রিমাতাস জাইলিয়াস।

সরকারের কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিম(সিআইআরটি)-এর বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে আয়োজিত এ সম্মেলনে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জানান, তথ্য চুরি হচ্ছে ৭৫ শতাংশ অ্যাপ হতে। এসব অ্যাপের অধিকাংশের সোর্স ঠিক নেই। ফলে মোবাইলের নিরাপত্তা ভেদ করে তথ্য নিয়ে যায়।

তিনি বলেন, হ্যাকাররা প্রতিশোধপরায়ণ হয়ে উঠছে। ব্যক্তি ছেড়ে তাদের লক্ষ্য এখন উপরে । বড় কোনো রাজনৈতিক এজেন্ডায় তারা সাইবার আক্রমন চালাচ্ছে।

ict-palak

সাইবার নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও শক্তিশালী করতে নতুন নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করার কথা উল্লেখ করে পলক বলেন, পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপে আরও দক্ষ জনশক্তি তৈরি করতে হবে। দেশের সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠানকে গুরুত্ব দিয়ে সাইবার নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

সম্মেলনে ‘চ্যালেঞ্জ সাইবার থ্রেটস: কান্ট্রি, ওয়ার্ল্ড, সাইবার সিকিউরিটি’ শীর্ষক একটি উপস্থাপনা দেন প্রতিমন্ত্রী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রিমাতাস জাইলিয়াস বলেন, তথ্যপ্রযুক্তিতে তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোর বড় বাধা সাইবার হুমকি। বিশ্ব অর্থনীতিতে সাইবার নিরাপত্তা এখন অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

সম্মেলনে মাইক্রোসফট, সিসকো, এনআরডিএস, সিএ টেকনোলজিস, রিভ সিস্টেমস, ফায়ার আই   ও ওয়ান ওয়ার্ল্ড ইউএসএসহ সাইবার নিরাপত্তায় খ্যাতনামা অনেক কোম্পানি অংশ নেয় ।

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment