মোবাইল ফোনে প্রেম পরকীয়ার ফাঁদে প্রবাসীর স্ত্রী, অতঃপর গণধর্ষণ!

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় পরকীয়ার ফাঁদে পরে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে জবা খাতুন (৩৫) নামের এক দুবাই প্রবাসীর স্ত্রী। শনিবার রাতে উপজেলার মন্ডুতোষ ইউনিয়নের দিয়ারপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় রবিবার ধর্ষিতা জবা খাতুন বাদী হয়ে ভাঙ্গুড়া থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ ধর্ষণের মুল নায়ক ফরহাদ আলী (৩০) কে আটক করেছে। ফরহাদ দিয়াপাড়া গ্রামের মৃত ফজলুল হকের পুত্র।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে জানা গেছে, গৃহবধূ জবার বাড়ি কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার মহিষকুন্ডি গ্রামে। স্বামী সাহাবুল ইসলাম দুবাই থাকেন। ছয় মাস আগে জবার মোবাইল ফোনে ফরহাদ নামে আটক যুবকের ফোন থেকে মিস কল দেয়ার পর ফোনে কথা হয় তাদের। অতঃপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

প্রেমিক যুগল দুজনই পরস্পরকে জানায় তারা বিবাহিত এবং তাদের একটি করে সন্তান রয়েছে। অবশেষে ফরহাদের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে জবা শনিবার দুপুরে কুষ্টিয়া হতে রওনা হয়ে সন্ধ্যায় ভাঙ্গুড়া রেলস্টেশনে পৌছেন। ফরহাদ তার দুই সহযোগিসহ জবাকে রিসিভ করে নিজ গ্রামের একটি পরিত্যাক্ত ঘরে নিয়ে তিনজন পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এ বিষয়ে ভাঙ্গুড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ নজরুল ইসলাম জুয়েল এ ব্যাপারে মামলা রুজু হওয়া এবং ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ধর্ষিতার মেডিকেল পরীক্ষার জন্য রবিবার বিকালে পাবনা সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদ সূত্র-Zoombangla

Share This Post

Leave a Comment