{{ islamic Post }} যেনেনি পবিত্র মুহররমুল হারাম মাসের ১০ তারিখ পবিত্র আশূরা শরীফ দিনের আমলসমূহ এক নজরে দেখেনি, বিস্তারিত বোঝিয়ে লিখলাম। Post By Jakariya

{{ islamic Post }} যেনেনি পবিত্র মুহররমুল হারাম মাসের ১০ তারিখ পবিত্র আশূরা শরীফ দিনের আমলসমূহ এক নজরে দেখেনি, বিস্তারিত বোঝিয়ে লিখলাম।

এক নজরে দেখুন আর্টিকেল সূচি

Assalamualaikum সবাই কেমন আছেন ?
আশা করি ভালোই আছেন। ভালো থাকারি কথা, কারন যারা TrickBD.Com নামের এই বিশাল প্লাটফর্ম এর সাথে থাকে তারা সব সময়ই ভালোই থাকে।

প্রথমেই বলে রাখি ট্রিকবিডিতে আমি নতুন, আমি আমার বড় ভাইর মাধ্যমে ট্রিকবিডিতে এসেছি, এডমিন এডিটর এবং মেম্বারদের উৎসাহ পেলে, অবশ্যই আরও গুরুত্বপূর্ণ ইসলামিক মাসলা মাসায়েল নিয়ে, দ্বারাবাহীক পোস্ট করবো।

ধন্যবাদ জানাই স্বাধীন ভাইকে আমাকে ট্রেইনার করার জন্য, এবং সাথে সাথে ধন্যবাদ জানাই রানা ভাইকে, আমাকে ট্রিকবিডিতে একাউন্ট করে দেয়ার জন্য, ধন্যবাদ আমার আপন বড় ভাই Reja BD কে আমাকে ট্রিকবিডির সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়ার জন্য।

←অনেক কথা বলে ফেললাম, আর কথা বাড়াবনা, এবার পোষ্টটে চলে যাই। “চলুন এবার টিউন টি শুরু করি→

দেখেনিন পবিত্র মুহররম মাসের ১০ তারিখ পবিত্র আশূরা শরীফের দিনের আমলসমূহ।


(১) ২টি রোযা রাখা,


(২) পরিবারবর্গকে ভাল খাওয়ানো,


(৩) ইফতার করা,


(৪) গরীবদের পানাহার করানো ও ইয়াতীমের
মাথায় হাত বুলানো,


(৫) গোসল করা,


(৬) চোখে (ইছমিদ) সুরমা দেয়া।
বিস্তারিত:
পবিত্র আশূরা শরীফ উপলক্ষে রোযা:

ﻋَﻦْ ﺣَﻀَﺮَﺕْ ﺍَﺑِـﻰْ ﻫُﺮَﻳْﺮَﺓَ ﺭَﺿِﻰَ ﺍﻟﻠﻪُ ﺗَﻌَﺎﻟﻰٰ ﻋَﻨْﻪُ ﻗَﺎﻝَ ﻗَﺎﻝَ ﺭَﺳُﻮْﻝُ ﺍﻟﻠﻪِ ﺻَﻠّﻰ
ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ﺍَﻓْﻀَﻞُ ﺍﻟﺼِّﻴَﺎﻡِ ﺑَﻌْﺪَ ﺭَﻣَﻀَﺎﻥَ ﺷَﻬْﺮُ ﺍﻟﻠﻪِ ﺍﻟْﻤُﺤَﺮَّﻡُ .


অর্থ : “হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার
থেকে বর্ণিত। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর
পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক
করেন, পবিত্র রমাদ্বান শরীফ উনার ফরয রোযার
পর উত্তম রোযা হচ্ছে মহান আল্লাহ পাক উনার মাস
পবিত্র মুহররমুল হারাম শরীফ মাস উনার
রোযা।” (মুসলিম শরীফ, তিরমিযী শরীফ,
মিশকাত শরীফ, রিয়াদুছ ছলিহীন)
আরো বর্ণিত রয়েছে-

ﻋَﻦْ ﺣَﻀَﺮَﺕْ ﺍَﺑِـﻰْ ﻗَﺘَﺎﺩَﺓَ ﺭَﺿِﻰَ ﺍﻟﻠﻪُ ﺗَﻌَﺎﻟﻰٰ ﻋَﻨْﻪُ ﻗَﺎﻝَ ﻗَﺎﻝَ ﺭَﺳُﻮْﻝُ ﺍﻟﻠﻪِ ﺻَﻠَّﻰ
ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ﺻِﻴَﺎﻡُ ﻳَﻮْﻡِ ﻋَﺎﺷُﻮْﺭَﺍﺀَ ﺍَﺣْﺘَﺴِﺐُ ﻋَﻠٰﻰ ﺍﻟﻠﻪ ﺍَﻥْ ﻳُّﻜَﻔّـِﺮَ ﺍﻟﺴَّﻨَﺔَ ﺍﻟَّﺘِﻰْ
ﻗَــــﺒْـــــﻞَﻩُ .


অর্থ : “হযরত আবূ কাতাদাহ রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার
থেকে বর্ণিত। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর
পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক
করেন, পবিত্র আশূরা শরীফ উনার রোযা পালনে
আমি মহান আল্লাহ পাক উনার দরবার শরীফ-এ আশা
করি যে, তিনি (উম্মতের) বিগত বছরের গুনাহ-খতা
ক্ষমা করে দিবেন।” (মুসলিম শরীফ)
পবিত্র আশূরা শরীফ উপলক্ষে শুধুমাত্র ১টি রোযা
রাখা মাকরূহ ও হারাম। কেননা ইহুদীরা পবিত্র আশূরা
শরীফ উপলক্ষে শুধুমাত্র একটি রোযা রেখে
থাকে। তাই মুসলমানগণের উচিত ইহুদীদের খিলাফ
বা বিপরীত আমল করা।
পবিত্র আশূরা শরীফ উনার দিন পরিবারবর্গকে ভাল
খাওয়ানো:

ﻋَﻦْ ﺣَﻀَﺮَﺕْ ﻋَﺒْﺪِ ﺍﻟﻠﻪِ ﺑْﻦِ ﻣَﺴْﻌُﻮْﺩٍ ﺭَﺿِﻰَ ﺍﻟﻠﻪُ ﺗَﻌَﺎﻟﻰٰ ﻋَﻨْﻪُ ﺍَﻥَّ ﺭَﺳُﻮْﻝَ ﺍﻟﻠﻪِ ﺻَﻠَّﻰ
ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ﻗَﺎﻝَ ﻣَﻦْ ﻭَﺳَّﻊَ ﻋَﻠﻰٰ ﻋِﻴَﺎﻟِﻪ ﻓِﻰْ ﺍﻟﻨَّﻔَﻘَﺔِ ﻳَﻮْﻡَ ﻋَﺎﺷُﻮْﺭَﺍﺀَ ﻭَﺳَّﻊَ
ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﺳَﺎﺋِﺮَ ﺳَﻨَﺘِﻪ


“যে ব্যক্তি পবিত্র আশূরা শরীফ উনার দিন তার
পরিবারবর্গকে ভাল খাওয়াবে-পরাবে মহান আল্লাহ পাক
তিনি সারাবছর তাকে স্বচ্ছলতা দান
করবেন।” (ত্ববারানী শরীফ, শুয়াবুল ঈমান, মা-
ছাবাতা-বিসসুন্নাহ্, মুমিন কে মাহে ওয়া সাল ইত্যাদি)
পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে রয়েছে-

ﻣَﻦْ ﻓَﻄَّﺮَ ﻓِﻴْﻪِ ﺻَﺎﺋِﻤًﺎ ﻓَﻜَﺎَﻧَّـﻤَﺎ ﺍَﻓْﻄَﺮَ ﻋِﻨْﺪَﻩ ﺟَـﻤِﻴْﻊَ ﺍُﻣَّﺔِ ﻣُـﺤَﻤَّﺪٍ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ
ﻭَﺳَﻠَّﻢَ


“যে ব্যক্তি পবিত্র আশূরা শরীফ উনার দিন মেশক
মিশ্রিত সুরমা চোখে দিবে সেদিন হতে
পরবর্তী এক বছর তার চোখে কোন প্রকার
রোগ হবে না।” (মাকাসিদে হাসানা, শুয়াবুল ঈমান,
দায়লামী, মাছাবাতা বিসসুন্নাহ্)

*****************************


“ সুবহানাল্লাহ লেখাটি শেয়ার করে
সোওয়াব এর অংশীদার হতে ভুলবেন না।


ট্রিকবিডির ভিজিটর দের একটা কথাই বলব। যে, আপনারা সবাই সব সময় ট্রিকবিডির সাথে থাকবেন, এবং কোন রকম হাদিস বা পোষ্ট আপনাদের পচঁন্দ অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

ফেইসবুকে আমি জাকারিয়া

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment