দেখে নিন কিভাবে Coinbase বিটকয়েন ওয়ালেট একাউন্ট খুলবেন। By -Tr Tanvir

আমার আজকের পোস্ট বিটকয়েন নিয়ে। অনেকের বিটকয়েন নিয়ে অনেক কনফিউশন আছে আমার আজকের পোস্টটিতে আমি আপনাদের কনফিউশনগুলো দূর করার চেষ্টা করবো সেইসাথে কিভাবে বিটকয়েন ওয়ালেট একাউন্ট খুলবেন এবং কিভাবে ইনকাম করবেন সেই সম্পর্কে
আলোচনা করবো।

প্রথমেই জেনে নেই,,,,,

★★ বিটকয়েন কি?

বিটকয়েন হলো একটি সাংকেতিক মুদ্রা যার বাস্তব কোনো রুপ নেই কিন্তু এর মাধ্যমে অনলাইনে কেনাকাটা করা যাই, অর্থ লেনদেন করা যায়। বিটকয়েন এর সহজ লেনদেন এবং এর নিরাপত্তারর জন্য বর্তমান বিশ্বে বিটকয়েন খুবই জনপ্রিয় এবং এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বেড়েই চলছে। বর্তমানে ১ বিটকয়েন= ৯৮৬ ডলার এবং এর মুল্য ক্রমাগত বেরেই চলছে। মুলত বিটকয়েন এর মুল্য স্থিতিশীল নয়। এটার মুল্য সর্বদা পরিবর্তন হতে থাকে। বিটকয়েন ওয়ালেট একাউন্ট খোলার জন্য অনেক সাইট আছে তারমধ্যে Coinbase এবং Blockchain সবচেয়ে জনপ্রিয়। তবে আমি Blockchainএর তুলনাই Coinbase কেই বেশি প্রাধান্য দিবো কারন Coinbase অনেক
বেশি সিকিউরড এবং ব্যবহার করাও অনেক সহজ এবং সবথেকে বড় সুবিধা Coinbase থেকে বিটকয়েন ট্রান্সফার করতে কোনো ফি প্রদান করতে হয়না
কিন্তু Blockchain থেকে বিটকয়েন ট্রান্সফার করতে প্রচুর ফি প্রদান করতে হয়। আমি প্রথম যখন Blockchain ব্যবহার করেছিলাম তখন একবার ৫০ টাকার বিটকয়েন ট্রান্সফার করতে আমাকে ২৮ টাকা ফি দিতে হয়েছিল তারপর থেকে আমি Coinbase ব্যাবহার করি এখানে কোনো ফি দিতে হয়না।

★★কিভাবে Coinbase একাউন্ট খুলবেন??

Coinbase একাউন্ট খুলতে এই লিংকে যান

তারপর সব কিছু ফিলাপ করে Signup করুন তারপর ইমেইল একটা লিংক যাবে সেটাতে ক্লিক করে ভেরিফাই করবেন। তারপর একাউন্ট এ লগিন করে Dashboard থেকে BTC Wallet এ গিয়ে My adress এ ক্লিক করলে ৩৪
ডিজিটের এলোমেলো অক্ষরের একটা এড্রেস পাবেন এটাই আপনার ওয়ালেট এড্রেস এর মাধ্যমেই আপনার উপার্জিত বিটকয়েন আপনার
একাউন্ট এ জমা হবে।

আরেকটা পদ্ধতিতে আপনি Coinbase একাউন্ট খুলতে পারেন এটা সবথেকে সহজ পদ্ধতি এ পদ্ধতিতে একাউন্ট খুলতে প্রথমে আপনাকে Playstore থেকে Coinbase এপটি নামাতে হবে। তারপর এপটি ওপেন করে Signup করে ইমেইল ভেরিফাই করে নিতে হবে তারপরে এপটি ওপেন করে Dashboard প্যানেল থেকে Btc Wallet এ ক্লিক করতে হবে তারপর ডানদিকের এড্রেস আইকন এ ক্লিক করলে ৩৪ ডিজিটের বিটকয়েন এড্রেস
পাবেন এড্রেস এর নিচের Copy Adress এ ক্লিক করলে এড্রেস কপি হয়ে যাবে। এই এড্রেসটি বিভিন্ন বিটকয়েন ইনকাম এর সাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে কাজে লাগবে।

নিচের ছবিগুলো দেখুন

★★ বিটকয়েন নিয়ে কিছু কনফিউশন

কনফিউশন-১: বিটকয়েন ওয়ালেট এড্রেস সবসময় পরিবর্তন হতে থাকে যার ফলে অনেকে কনফিউশন এ পরে যান যে একবার পেমেন্ট পাবার পরে
আপনি আগের এড্রেস দিয়ে আবারো পেমেন্ট নিতে পারবেন কিনা। এর উত্তর হলো হ্যা বিটকয়েন এড্রেস পরিবর্তন হলেও আপনি একবার যে এড্রেস পেয়েছেন সেই এড্রেস এই বার বার পেমেন্ট নিতে পারবেন এড্রেস পরিবর্তন হলেও আপনার পেমেন্ট আপনার ওয়ালেট এই আসবে অন্য কোথাও যাওয়ার কোনো ভয় নেই।

কনফিউশন-২: অনেকের মনে প্রশ্ন থাকে সবগুলো সাইটে কি একই এড্রেস ব্যবহার করবো নাকি ভিন্ন ভিন্ন সাইটে ভিন্ন এড্রেস ব্যাবহার করবো এর
উত্তর হলো একটি এড্রেস একটি সাইট এর জন্য ব্যবহার করা ভালো। আপনি প্রত্তেকটি সাইটে এ রেজিস্ট্রেশন করার আগে আপনার Coinbase এপটি
ওপেন করে এড্রেস কপি করে নিবেন তাহলে আপনার প্রত্তেকটি সাইট এর জন্য আলাদা আলাদা এড্রেস হবে।

কনফিউশন-৩: এই প্রশ্নটা আমাদের সকলেরই যে বিটকয়েন দিয়ে কি করবো উত্তর হলো বিটকয়েন দিয়ে আপনি অনেককিছু করতে পারেন যেমন বিটকয়েন দিয়ে আপনি অনলাইনএ পেমেন্ট করতে পারেন এবং বিটকয়েন দিয়ে আপনি মোবাইল রিচার্জ নিতে পারবেন এছারা আপনি আপনার
অর্জিত বিটকয়েন এর টাকা বিকাশেও নিতে পারবেন।

* ★ * কিভাবে বিটকয়েন দিয়ে মোবাইল রিচার্জ করবেন এবং কিভাবে বিটকয়েন এর টাকা বিকাশে নিবেন সে সম্পর্কে পরবর্তি পোস্ট এ বিস্তারিত আলোচনা করবো।

আজকে এই পর্যন্তই আগামী পোস্ট এ কিভাবে বিটকয়েন ইনকাম করবেন সে সম্পর্কে আলোচনা করবো আপনারা ততক্ষণে বিটকয়েন একাউন্ট খুলে
রাখুন

আশা করি বুজতে সমস্যা হবে না। কিন্তু যদি বুজতে সমস্যা হয় কমেন্ট করে জানাবেন নাহলে ফেইসবুকে যোগাযোগ করতে পারেন

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment