জানেন কি, এশিয়ার কোন দেশের পাসপোর্ট সবচেয়ে শক্তিশালী?

পাসপোর্ট পাওয়া সব নাগরিকের অধিকার। একেক দেশের পাসপোর্ট করার পদ্ধতি একেক রকম। পৃথিবীতে এমন দেশ আছে যাদের পাসপোর্ট তৈরির ব্যয় খবই কম। আবার এমন দেশও আছে যাদের পাসপোর্ট তৈরির ব্যয় ও ভোগান্তি দুটোই অনেক বেশি। 

শুধু তাই নয় সবদেশের পাসপোর্ট এর মূল্যায়ন এক রকম নয়। অনেক দেশ আছে যাদের পাসপোর্ট খুবই শক্তিশালী। যাদের নাগরিকরা কোন রকম ভিসা ছাড়াই শুধু তার পাসপোর্ট ব্যবহার করে ঘুরে আসতে পারে কমপক্ষে ১৭৪ টি দেশ।

এশিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী হচ্ছে সিঙ্গাপুরের পাসপোর্ট। এছাড়া সিঙ্গাপুরের পাসপোর্টকে সারা বিশ্বে দ্বিতীয় শক্তিশালী পাসপোর্ট হিসেবে গণ্য করা হয়। বিশ্বের ‘শক্তিশালী পাসপোর্ট’ ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৯তম। আর ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলের মধ্যে ১৭৭টিতে ভিসামুক্ত ভ্রমণের সুবিধা নিয়ে সারা পৃথিবীতে তালিকায় শীর্ষে রয়েছে জার্মান পাসপোর্ট।

সিঙ্গাপুরের পাসপোর্টধারীরা ১৫৭টি দেশে ভিসামুক্ত ভ্রমণের সুবিধা পান । সিঙ্গাপুর ছাড়াও এশিয়ার অনান্য দেশের মধ্যে জাপান এবং মালয়েশিয়ার নাগরিকদের বর্হিবিশ্বে ভ্রমণের সুযোগটা তুলনামূলকভাবে বেশি। আর ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলের মধ্যে ১৭৭টিতে ভিসামুক্ত ভ্রমণের সুবিধা নিয়ে সারা পৃথিবীতে তালিকায় শীর্ষে রয়েছে জার্মান পাসপোর্ট।

এছাড়া এশিয়ার শক্তিশালী পাসপোর্টধারী অন্যান্য দেশের মধ্যে রয়েছে জাপান (১৫৫), মালয়েশিয়া (১৫৪), দক্ষিণ কোরিয়া (১৫৩), হংকং (১৪০) । এদিকে, ২৬টি দেশে ভিসামুক্ত ভ্রমণের সুবিধা নিয়ে সবচেয়ে দুর্বল বা ‘খারাপ পাসপোর্টের’ তালিকায় রয়েছে পাকিস্তান। 

এরপর রয়েছে শ্রীলঙ্কা (৩৫), বাংলাদেশ (৩৫) এবং নেপাল (৩৭)। চীন ও ভারতের অবস্থানও খুব একটা ভালো না। চীনের নাগরিকরা ৫৭টি ও ভারতের নাগরিকরা ৪৬টি দেশে ভিসা ছাড়াই ভ্রমণ করতে পারেন।

তথ্য ও ছবি : ইন্টারনেট

Share This Post
About MainitBD Author

শিক্ষা জাতীর মেরুদন্ড! শিখবো, না হয় শেখাবো।

Leave a Comment