ভালবাসা কাকে বলে?

ভালবাসা সত্যিই ‘কারে কয়’, সেকথা স্বয়ং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরেরও জানা ছিল না ৷ আমরা তো কোন ছাড় ৷
কিন্তু, ভালবাসার সম্পর্ক কীভাবে গড়ে ওঠে, সেটা কি আপনার জানা আছে? বা একটা সম্পর্ক ঠিক কখন পরিপূর্ণতা পায়? আসলে ভালবাসার সম্পর্কে থাকেন দু’জন ৷ তাদের দু’জনের সখ্যতার আরেক নাম ভালবাসা ৷ আর এই দু’জনের মনের মিল হলে, একে অপরকে বুঝলে, বিশ্বাস করলে তবেই ভালবাসা সার্থক ৷ তাই, বলে যাকে তাকে তো আর ভালবাসা যায় না ৷

লোকে বলে ভালবাসার নাকি কোন কারণ নেই ৷ তাই বলে যাকে ভালবাসবেন, তিনি আপনার যোগ্য কিনা সেটাতো একবার যাচাই করতে হবে ৷ তাই ঠিক কী ধরণের মানুষ হতে পারেন, আপনার যোগ্য সেটা জেনে নিন ৷
দামী উপহার তো সকলেই কিনে দিতে পারেন ৷ কিন্তু হাজারো কাজের মাঝেও যিনি নিজের সময় বের করে যা আপনাকে উপহার দিতে পারেন, মনে করবেন তিনিই আপনার ভালবাসার যোগ্য ৷ দূরে দূরে থাকলে ভালবাসা কিন্তু কখনই পরিপূর্ণতা পায় না ৷ তাই এমন কাউকে ভালবাসেন যিনি দামি জিনিসের বদলে আপনাকে তার দুর্মূল্য সময়টা উপহার দিতে পারেন ৷

মন খারাপ থাকলে সান্ত্বনা অনেকেই দিতে পারেন? কিন্তু আপনার মুখে হাসি ফোটানোর চেষ্টা সেই মানুষই করবেন যিনি সত্যি আপনাকে ভালবাসেন ৷ কথাটা শুনতে অনেকটা নাটকীয় মনে হলেও, এটাই সত্যি ৷ যিনি আপনাকে ভাল রাখতে নিজের প্রাণপাত করতে পারেন তাকেই আপনার সবটুকু ভালবাসা দিয়ে ভরিয়ে দিন ৷

অনেক সময় পরিবারের লোকজন বা বন্ধু বান্ধবও আপনার কাজের সমালোচনা করবেন ৷ আপনার মনের কথা বুঝতে হয়ত অনেকেই পারবেন না ৷ যে কাজের জন্য এত সমালোচনা সেটা কেন করলেন তা কিন্তু কেউ আপনাকে হয়ত একবারও জিজ্ঞেস করবে না আপনি কেন এমনটা করলেন ৷ খুঁজলে আপনাকে নিন্দে করারও লোকের অভাব হবে না ৷ কিন্তু যিনি আপনার সমালোচনা না করে আপনাকে সাপোর্ট করবেন ৷ আপনি কীভাবে ভাল থাকবেন সেটার যার মূল লক্ষ্য হবে, তিনিই একমাত্র আপনার ভালবাসা পাওয়ার যোগ্য ৷

একটা কথা কি জানেন? ভালসময়ে আশপাশে লোকের অভাব হয় না ৷ কিন্তু খারাপ সময়ে নিঃসঙ্গতাই হয় একমাত্র সঙ্গী৷ দু’একজন হয়ত কেবল আপনার দুঃখে সামান্য দুঃখ প্রকাশ করবেন, ব্যস ওইটুকুই ৷ কিন্তু যদি কখনও এমন কাউকে পান, যিনি আপনার সমস্ত দুঃখ, রাগ, অভিমানকে নিজের করে নিয়ে আপনাকে আপন করে নেবেন তবে চোখ বন্ধ করে সেই মানুষটিকেই ভালবাসুন ৷

আপনার কথা হয়ত অনেকেই শোনেন, কিন্তু আপনার কথার গুরুত্ব বোঝেন ক’জন? ভালবাসার সম্পর্ক তখনই মজবুত হয়, যখন আপনারা একে অপরের কথার গুরুত্ব বুঝতে পারবেন৷ আপনি যাকে ভালবাসছেন, তিনি আপনার কোন কথার কারণ, তার অর্থ বুঝতে পারছেন কিনা সেটা দেখে নিন৷ যিনি আপনার সমস্ত কথার সঠিক অর্থ বুঝতে পারেন, তেমন মানুষকে ফিরিয়ে দেওয়ার আগে দু’বার ভাবুন৷ কারণ তিনিই একমাত্র আপনার ভালবাসার যোগ্য৷

Share This Post

Leave a Comment